• chanakyabangla

অমানবিক প্রতিবেশী, করো ণাআক্রান্তের ফ্ল্যাটে ঝুলিয়ে দিল তালা।


অমানবিক প্রতিবেশী, করো ণাআক্রান্তের ফ্ল্যাটে ঝুলিয়ে দিল তালা।

চাণক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক :

সেপ্টেম্বর 5। 2020

অমানবিক। করোনা আক্রান্তের ফ্ল্যাটে তালা ঝুলিয়ে দিল এক প্রতিবেশী! কোনওভাবে তালা খোলানোর ব্যবস্থা করতে না পেরে ১০০ নম্বরে ডায়াল করে পুলিশের দ্বারস্থ হন ভিতরে আটকে থাকা ফ্ল্যাটের বাসিন্দারা। পুলিশ এসে তাঁদের উদ্ধার করে। সিসি টিভির ফুটেজ দেখে চিহ্নিত করা হয় ওই প্রতিবেশীকে। শুক্রবার সকালে কেষ্টপুরে ঘোষপাড়া লাগোয়া চণ্ডীবেড়িয়ার একটি আবাসনের ঘটনা। অভিযুক্ত যুবকের সাফাই, ওই ফ্ল্যাটের এক বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। আরেকজনের রিপোর্টও পজিটিভ। সংক্রমণের ভয়েই অনৈতিক এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে দাবি তার। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

আবাসনের ছ’‌তলায় একটি ফ্ল্যাটে থাকে ওই পরিবার। গৃহকর্তা থাকেন আসানসোলে। মাঝেমধ্যে কেষ্টপুরের ফ্ল্যাটে আসেন তিনি। এখানে তাঁর ছেলে থাকেন। গৃহকর্তার স্ত্রী অসুস্থ হওয়ায় গত সপ্তাহে তাঁকে এখানে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্ত্রীর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর নিয়ম অনুযায়ী পরিবারের অন্যদেরও কোভিড পরীক্ষা হয়। দেখা যায়, গৃহকর্তার মা বছর পঁয়ষট্টির প্রৌঢ়াও করোনা আক্রান্ত। পরিবারের দাবি, বাড়িতে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা চলছে প্রৌঢ়ার। কোয়ারেন্টিনের নিয়ম মেনে চলছেন অন্যরা। বাইরে বেরোচ্ছেন না। পানীয় জল–‌সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী ফ্ল্যাটের বাইরে এসে দিয়ে যান দোকানদাররা।

গৃহকর্তার অভিযোগ, শুক্রবার সকালে ফ্ল্যাটের দরজা খুলে তাঁরা দেখেন কোলাপসিবল গেটে তালা মারা। বাইরে থেকে কেউ তালা লাগিয়ে দিয়েছে। আবাসনের অন্যদের ফোনে জানানো হয়। কেউ কিছু জানেন না বলেন। এরপর বাধ্য হয়ে ১০০ নম্বরে ডায়াল করে পরিবার। ঘটনাস্থলে আসে বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিশ। দেখা যায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বারমুডা ও স্যান্ডো গেঞ্জি পরে তালা মারছে এক যুবক। মাস্ক ও ফেসশিল্ড পরে আছে সে। ওই ফ্ল্যাটের নীচের তলায় থাকে অভিযুক্ত যুবক, পেশায় সফটঅয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। তাকে দিয়েই তালা খোলায় পুলিশ। সে অভিযোগ করেছে, নিয়ম না মেনে বাইরে বেরোচ্ছিল এই পরিবারের লোকজন।