• chanakyabangla

কঙ্গনা কে থাপ্পর মারার হুমকি, শিবসেনার মহিলা সদস্যেরা


কঙ্গনা কে থাপ্পর মারার হুমকি, শিবসেনার মহিলা সদস্যেরা।

চাণক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

সেপ্টেম্বর 5, 2020

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘‌কঙ্গনা যদি মু্ম্বইয়ে পা রাখেন, তবে শিবসেনার মহিলা সদস্যেরা থাপ্পড় মেরে তাঁর মুখ ভেঙে দেবেন।’‌ কঙ্গনাকে হুমকি দেওয়ার জন্য শিবসেনা বিধায়ক প্রতাপ সরনায়েককে গ্রেপ্তারের দাবি তুললেন জাতীয় মহিলা কমিশনের প্রধান রেখা শর্মা।



মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করার পরেই কঙ্গনার বিপক্ষে মুখ খুলেছেন অনেকেই। বলিউড তারকা থেকে শুরু করে রাজনীতিবিদ ও সাধারণ মানুষ। এরই মধ্যে টুইট করে হুমকি দিলেন শিবসেনা বিধায়ক প্রতাপ সরনায়েক। তাঁর বক্তব্য, ‘‌শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত তো অনেক বিনম্রভাবে তাঁকে মুম্বইয়ে ফিরতে না করেছেন। কিন্তু আমি বলছি, তিনি যদি মুম্বইয়ে পা রাখেন, তবে আমাদের সেনা দলের মহিলা সদস্যরা থাপ্পড় মেরে তাঁর মুখ ভেঙে দেবেন। আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নামে আবেদন জানাব, কঙ্গনা যে মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেছেন, এর জন্য তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করা উচিত। যে শহর অজস্র ব্যবসায়ী ও চলচিত্র তারকার জন্ম দিয়েছে, তাকে পিওকের সঙ্গে তুলনা কীকরে করলেন তিনি?‌’‌

এরপরই কঙ্গনা একটি টুইট করেন, ‘‌আমি দেখছি, অনেকেই আমাকে হুমকি দিচ্ছে আমি যাতে মুম্বই ফেরত না যাই। তাঁদের জানিয়ে রাখমি, ৯ সেপ্টেম্বর মানালি থেকে মুম্বইয়ে পা রাখব আমি। কারওর বাবার ক্ষমতা নেই যে আমায় আটকায়।’‌ এখানেই শেষ নয়, তিনি এবারে পাক অধিকৃত কাশ্মীর নয়, একেবারে তালিবানদের সঙ্গে তুলনা করলেন মুম্বইয়ের রাজনীতিবিদদের। বললেন, ‘‌পালঘরের সাধুদের মতো আমায় মারার হুমকি দিয়ে আপনারা একদিনে পাক অধিকৃত কাশ্মীর থেকে একেবারে তালিবানদের যোগ্যতায় উঠে গেলেন, তা প্রশংসনীয়।’‌‌



মুম্বই পুলিশের দিকে আঙুল তুলেছিলেন কঙ্গনা রানৌত। আর তারই উত্তরে শিবসেনা মুখপত্র ‘‌সামনা’–তে ‌রাউতের কটাক্ষ, ‘‌যে শহর তাঁকে জীবনধারণের উপায় করে দিয়েছে, তাঁর প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা করছেন কঙ্গনা। যদি এতই সমস্যা মুম্বই পুলিশকে নিয়ে, তাহলে আর মুম্বইয়ে ফিরতে হবে না ওনাকে। ওনার যদি সত্যিই এত সমস্যা হত, তাহলে উনি টুইট না করে অভিযোগ দায়ের করতেন থানায়।’ এর পাল্টা উত্তরে মোদির সমর্থক কঙ্গনা রানৌত মুম্বইকে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। টুইট করছিলেন, ‘শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন আমায়। মুম্বইয়ের রাস্তায় ‘‌আজাদি’‌ গ্রাফিতির পরে এবার প্রকাশ্য হুমকি?‌ মুম্বইকে এখন আমার পাক অধিকৃত কাশ্মীর মনে হচ্ছে!‌’‌ 

সপ্তাহখানেক আগেই‌ সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু–রহস্যে উঠে এসেছে মাদকচক্রের যোগসাজশের কথা। বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ট্যাগ করে একটি টুইট করেন কঙ্গনা। তাঁর দাবি, রণবীর সিং, রণবীর কাপুর, অয়ন মুখোপাধ্যায়, ভিকি কৌশল রা সকলে কোকেন আসক্ত। এঁদের রক্ত পরীক্ষা করা হোক। ক’‌দিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা দাবি করেছিলেন, বলিউডের ৯৯ শতাংশ অভিনেতা কোনও না কোনও ভাবে মাদক নিয়েছেন। নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো যদি কঙ্গনার সাহায্য চায়, তিনি স্বেচ্ছায়‌ তাঁদেরকে এই অন্ধকার জগতের ব্যাপারে তথ্য দিয়ে সাহায্য করবেন। তাঁর দাবি, তিনি যে মহান কাজটি করতে চলেছেন, তাঁর জন্য তিনি নিজেকে সুরক্ষিত মনে করছেন না। তাই তাঁর নিরাপত্তা চাই। কিন্তু তিনি মুম্বই পুলিশের ওপর থেকে ভরসা হারিয়েছেন। তাই প্রয়োজনে কেন্দ্র বা হিমাচল প্রদেশ সরকার থেকে সুরক্ষা দেওয়া হোক তাঁকে। তারপর একাধিক টুইটে তিন মুম্বই পুলিশের নিন্দে করেছেন দু’‌দিন ধরে। কঙ্গনা রানৌতের নাম ব্যবহার করে ‘‌আজাদি’ গ্রাফিতি তৈরি করা হয়েছিল মুম্বই রাস্তায়। সেই ছবি টুইটে পোস্ট হওয়াপ পর দেখা গিয়েছিল মুম্বই পুলিশের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে সেই পোস্টটি লাইক করা হয়েছে। এরপর মুম্বই পুলিশের দিকে আঙুল তুলে কঙ্গনা জানান, ‘‌এরকম অবমাননাকর পোস্ট লাইক করছে মুম্বই পুলিশ!‌ এরপর মুভি মাফিয়াদের চাইতে আমার এদের বেশি ভয় করছে। মুম্বই পুলিশের থেকে নিরাপদ থাকতে হবে আমায়।’ অভিনেতার এই সমস্ত মন্তব্যের পরেই সঞ্জয় রাউত মুখপত্রে তাঁকে কটাক্ষ করেছিলেন। তারপর জল গড়িয়ে গিয়েছে অনেকটা। ‌ ‌