• chanakyabangla

কন্ডোম নয়, কন্ডোমের মতো দেখতে! এটিএম ব্যবহারকারীদের


কন্ডোম নয়, কন্ডোমের মতো দেখতে! এটিএম ব্যবহারকারীদের

ব্যবহারের সময় আঙুল

কন্ডোম নয়, এটিএম ব্যবহারকারীদের জন্য এটাই

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

করোনা মহামারীর পর বিশ্ববাসীর জীবন একেবারে বদলে যাবে। এমন আভাস দিয়ে রেখেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বাস্তবে সেটাই হতে চলেছে। ইতিমধ্যে আমাদের জীবনের এবং চারপাশের অনেক কিছুই বদলে যেতে শুরু করেছে। দেখা দিয়েছে নিউ নর্মাল। আমাদের খাদ্যাভ্যাস থেকে শুরু করে এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় যাতায়াত, বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়ানো, সবই বদলেছে। আর এবার এটিএম ব্যবহারের অভ্যাসের ক্ষেত্রেও বদল আসবে। করোনা সংক্রমনের হাত থেকে বাঁচার জন্য মাস্ক, গ্লাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার বাধ্যতামূলক হয়েছে। আর এবার এটিএম ব্যবহারের সময় আঙুলে পরতে হবে কভার।


এটিএম থেকে সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ টাকা তোলেন। শহরাঞ্চলের এটিএম দিনের বেশিরভাগ সময় ব্যস্ত থাকে। মানুষের ভিড় জমে এটিএম কাউন্টারের বাইরে। আর সেখান থেকেই করোনার সংক্রমণ ঘটার সম্ভাবনা সবথেকে বেশি। সেই জন্য এবার বাজারে এল ফিঙ্গার কভার। এটিএমের কি-বোর্ড-এ আঙুল দেওয়ার আগে সেই ফিঙ্গার কভার পরে ফেলতে হবে। এই ফিঙ্গার কভার দেখতে অনেকটা কন্ডোমের মতো। তবে আকারে কন্ডোমের তুলনায় অবশ্যই ছোট। ফিঙ্গার কভারের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এই কঠিন সময়ে মানুষ তা নিয়ে মজা করতে ছাড়ছে না। আসলে মনটাকে একটু হালকা করার চেষ্টা আর কী!


এটিএম ব্যবহারের সময় সরাসরি আঙুল ছোঁয়াতে হয় কিবোর্ডে। ফলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। তাছাড়া টাকা থেকেও করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর খবর ছড়িয়েছে। তাই ফিঙ্গার কভার এই সংক্রমণের হাত থেকে আমাদের বাঁচাতে পারে। ইতিমধ্যে এই ফিঙ্গার কভারের আকার ও আকৃতি নিয়ে মজার মিম ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই ফিঙ্গার কভারের তুলনা কন্ডোমের সঙ্গে করতে শুরু করেছে। আর তাতেই উঠছে হাসির রোল।