• chanakyabangla

কর মকুব সহ দুর্গাপুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদানের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর।


কর মকুব সহ দুর্গাপুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে অনুদানের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর, মণ্ডপ তৈরি থেকে বিসর্জনে জারি বিশেষ নির্দেশিকা

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

বিজেপি 'শকুন'! নাম না করে কটাক্ষ মমতার


কোভিড-কালেও কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়! করোনা সংক্রমণ এড়িয়ে দুর্গাপুজো করার জন্য কার্নিভাল বাদ সহ পুজো কমিটিগুলিকে বিশেষ নির্দেশিকা দেওয়ার পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি পুরকর, দমকল ফি সহ ৫০ শতাংশ বিদ্যুৎ কর ছাড় দেওয়ার ঘোষণা করেছেন তিনি।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুজো কমিটিগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে থেকে একাধিক ঘোষণা করে তিনি বলেন, 'সব রেজিস্টার্ড পুজো কমিটিগুলিকে এবার ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দেবে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি রেজিস্টার্ড পুজোগুলির জন্য পুরকর, দমকলের ফি-ও মুকুব করা হয়েছে। এমনকি বিদ্যুতের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ কর মকুব করা হয়েছে। সিইএসসি ও রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদের ক্ষেত্রে এই ছাড় দেওয়া হচ্ছে।'

অন্যদিকে, গ্লোবাল পরামর্শদাতা কমিটির পরামর্শ মত পুজো কমিটিগুলিকে খোলামেলা মণ্ডপ করার কথা আগেই জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। এদিন তার পাশাপাশি আরও কিছু নির্দেশিকা জারি করেন তিনি। যেখানে বলা হয়েছে, ১) মণ্ডপ খোলামেলা হবে তবে প্রতিমার মাথায় চালা থাকবে। আর চারপাশ ঘিরতে হলে মাথা খোলা রাখতে হবে।

২) মণ্ডপের ভিতর সর্বদা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

৩) প্রবেশ-বাহিরের আলাদা পথ হবে।

৪) মণ্ডপে হাফ কিলোমিটারের মধ্যে আসা মানুষের জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক পরতেই হবে।

৫) পুজো উদ্যোক্তাদেরও মণ্ডপে মাস্ক ও স্যানিটাইজার রাখতে হবে।

৬) স্বেচ্ছাসেবকদের ফেসশিল্ড দিতে হবে।

৭) অঞ্জলি সকলে একসঙ্গে দেওয়া যাবে না। প্রয়োজনে মাইকে মন্ত্রোচ্চারণ করে অঞ্জলি দিন।

৮) ভোগ বিতরণেও খেয়াল রাখতে হবে।

৯) সিঁদুর খেলার সময় ভেঙে নিন। একসঙ্গে সকলে নয়।

১০) পুজোয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে না।

প্রতিমা বিসর্জন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'একদিনে সব বিসর্জন নয়। সকলকে সচেতন থাকতে হবে। পুলিশ, দমকল, স্বাস্থ্য সব বিভাগ মিলে একটা কো-অর্ডিনেশন কমিটি তৈরি করুন। ঘাটগুলিতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করুন। স্বাস্থ্য দফতরও ভলেন্টিয়ার বাড়ান। সাধারণ মানুষকে নিয়ে বাকিরা সকলে মিলেই ভালো করে পুজো করব।'

এদিন পরিসংখ্যান দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, '৩৪৮৩৭ টি পুজো রয়েছে রাজ্য পুলিশের অধীনে। ২৫০৯ টি পুজো রয়েছে কলকাতা পুলিশের অধীনে এবং ১৭০৬ মহিলা পরিচালিত পুজো রয়েছে। সকলকেই বলব, পুজো করুন। শুধু একটু সাবধানে থাকুন।'

সম্প্রতি দুর্গাপুজো নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছু বিতর্কিত পোস্ট হয়েছিল। এদিন সেই প্রসঙ্গ তুলে বিজেপিকে একহাত নেন মমতা। নাম না করে বিজেপিকে ‘শকুন’ বলে কটাক্ষ করে মমতা

বলেন, 'আমরা পুজো নিয়ে রাজনীতি করি না। ওরা শকুনের মতো ওঁত পেতে বসে আছে।' পুজোকে কেন্দ্র করে বিভেদ তৈরির চেষ্টা করা হচ্ছে অভিযোগ করে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, 'পুজো আমি বন্ধ করতে পারিনা। সে অধিকার আমার নেই। ইদও আমি বন্ধ করতে পারিনা। ভিড় এড়ানোর জন্য ব্যবস্থা নিয়ে পুজো হবে। অনেকেই পুজো নিয়ে রাজনীতি শুরু করেছেন। আমরা তা করতে পারব না।'