• chanakyabangla

টার্গেট ২১-এর ভোট, কলকাতায় গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বিজেপি নেতৃত্ব



টার্গেট ২১-এর ভোট, কলকাতায় গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বিজেপি নেতৃত্ব

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

বিহারে বিকশিত পদ্ম৷ এবার লক্ষ্য বাংলা৷ বিজেপি’র সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার উত্তরবঙ্গ সফর শেষে বাংলায় পা রেখেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ বাঁকুড়া ও কলকাতা সফরে এসে চাগিয়ে গিয়েছিলেন দলীয় কর্মীদের৷ বাংলায় ভোট ময়দানে গেরুয়া ধড় তুলতে মঙ্গলবার হেস্টিংয়ের অফিসে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসছে বিজেপি নেতৃত্ব৷ এই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং দলের সাধারণ সম্পাদক বিএল সন্তোষ৷ 

কলকাতার বৈঠকে যোগ দিতে সোমবার সন্ধ্যাতেই বঙ্গে পৌঁছে গিয়েছেন বিএল সন্তোষ৷ তিনিই আজকের বৈঠকে পৌরহিত্য করবেন বলে মনে করা হচ্ছে৷ বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সর্বভারতীয় সহসভাপতি মুকুল রায়, রাজ্যের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গী, সহ-পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন এবং বিজেপি আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য৷ ২০২১ ভোটের আগে সম্প্রতি শাহ ঘনিষ্ঠ মালব্যকে বঙ্গ বিজেপি-র সহ-পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এদিন সকাল ১১টা থেকে বৈঠক শুরু হওয়ার কথা৷ উপস্থিত থাকবেন মোর্চা

সূত্রের খবর, জেলা এবং বুথ স্তর নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা হবে এদিনের বৈঠকে৷ রাজ্যে ৭৭ হাজার বুথ রয়েছে৷ এর মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রায় ১০ হাজার বুথ এলাকায় রয়েছে সংখ্যালঘু এবং অত্যন্ত দরিদ্র ভোটার৷ তাৎপর্যপূর্ণভাবে এই এলাকাগুলিতে দলের কোনও উপস্থিতিও নেই৷ এই সকল এলাকাগুলিতে কী ভাবে শক্তি বাড়াতে হবে, সে বিষয়ে দলের ক্যাডারদের সামনে রোডম্যাপ তৈরি করে দেওয়া হবে৷ এই বুথগুলি অধিকাংশই রয়েছে মালদা, মুর্শিদাবাদ, উত্তর দিনাজপুর, ডায়ন্ডহারবার, ক্যানিং এবং বসিরহাটে৷ 

তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় কী ভাবে দলের উপস্থিতিকে আরও চাঙ্গা করা যায়, সে বিষয়ে অমিত মালব্য বক্তব্য রাখবেন বলেও জানা গিয়েছে৷ অন্যদিকে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে নিয়মিত মত বিনিময় এবং রাজ্যে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের উপস্থিতি বঙ্গ নেতাদের মধ্যে দূরত্ব কমাতে সাহায্য করবে বলেই তিনি আশাবাদী৷ দিলীপ ঘোষের সঙ্গে দলীয় নেতাদের মতপার্থক্য বঙ্গ রাজনীতিতে ওপেন সিক্রেট৷ দিলীপ ঘোষের কাজ করার ধরনে নাখুশ আরএসএস-ও৷  ২০১৪ সালে পশ্চিমবাংলা থেকে মাত্র ২ জন সাংসদ পেয়েছিল বিজেপি৷ ২০১৯-এ বিজেপি পায় ১৮টি লোকসভা আসন৷ আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসকে ক্ষমতাচ্যুত করাই বিজেপি’র লক্ষ্য৷ সম্প্রতি বিহার ভোটে এনডিএ জোটের জয় নতুন করে অক্সিজেন জুগিয়ে দিয়েছে বঙ্গ বিজেপি’র অন্দরে৷