• chanakyabangla

দুঃসাহসিক কার্যকলাপ নেপালের, ভারতের এলাকা পাঠ্যপুস্তকের মানচিত্রে যোগ করলো নেপাল


চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

ভারত এবং নেপালের লোকদেখানো বন্ধুত্বের অবনতি ঘটছে। সম্প্রতিককালে নেপালের স্কুলের পাঠ্য পুস্তকে ভারতের তিনটি এলাকাকে কৌশলগতভাবে নিজেদের এলাকা বলে মানচিত্রে স্থান দিয়েছে নেপাল।

গত কয়েকমাস যাবৎ সীমান্ত বিরোধে নেপাল যে দুঃসাহস দেখাচ্ছে তা ইতিমধ্যেই জনসমক্ষে এসেছে। নেপালের এই বাড়বাড়ন্তের পিছনে চীনের হাত রয়েছে বলে অনেকে মনে করেন।

ভারতের লিপুলেখ, কালাপানি ও লিম্পিয়াধুরাকে নিজেদের এলাকার অন্তর্ভুক্ত করে মানচিত্র প্রকাশ করেছে নেপাল। যদিও ভারত এই মানচিত্র সম্পর্কে সত্যাসত্য মানতে নারাজ। কিন্তু এবার নেপাল নিজেদের স্কুলের পাঠ্য হয় ভারতের কিছু এলাকাসহ মানচিত্র অন্তর্ভুক্ত করল।

সংবাদসূত্রের খবর, নেপালের শিক্ষা মন্ত্রক নেপালের সংশোধিত মানচিত্র তাদের পাঠ্য বইয়ে অন্তর্ভুক্ত করেছে। দশম শ্রেণির পাঠ্য হিসেবে এই বই অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। নেপালের শিক্ষামন্ত্রী গিরিরাজ মানি পোখারেল নিজেই তার সম্পাদকীয় লিখেছেন।

২০১৯ সালে নভেম্বর মাস নগদ ভারত তার নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে। একই সঙ্গে নেপাল নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে। নেপালের মানচিত্রে ভারতবর্ষের উত্তরাখণ্ডের বেশিরভাগ জায়গাকে নিজেদের এলাকার বলে অন্তর্ভুক্ত করেছে নেপাল।

যদিও সেই জায়গাগুলি বর্তমানে ভারতের অধীনে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, নেপালের এই বাড়বাড়ন্তের পিছনে মদত যোগাচ্ছে চীন।

সূত্র: আজ সকাল