• chanakyabangla

বাম কংগ্রেস জোট করে টিএমসি কে চাপে ফেলার গুটি সাজাচ্ছি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী


বাম কংগ্রেস জোট করে টিএমসি কে চাপে ফেলার গুটি সাজাচ্ছি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:বাম কংগ্রেস জোট আসন নিয়ে মতপার্থক্য থাকলেও যে লোকটি চোখ বন্ধ করে বামেদের সাথে যোগ করেছিলেন এবং বাম-কংগ্রেস জোটের অন্যতম কাণ্ডারী হিসেবে নিজেকে তুলে ধরেছেন তিনি হলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

২০১৪ সালের লোকসভা এবং ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বাম এবং কংগ্রেসের ভোট শতাংশের হিসাবে যুক্ত করলে ৪০-৪৫ শতাংশ হয়। লোকসভা নির্বাচনের আগেই বিভিন্ন বুথ ফেরত সমীক্ষা বলে এসেছিল, বাম কংগ্রেস ৫ থেকে ৭ শতাংশ ভোট পাবে। তা-ই হয়েছে, বাম প্রায় ৭ শতাংশ, কংগ্রেস প্রায় ৫ শতাংশ ভোট পেয়েছে। মত ১২ শতাংশের মত।






এখন প্রশ্ন, যে ৪০ শতাংশ ভোট তারা ২০১৪ এবং ২০১৬ তে মিলিত ভাবে পেয়েছিল তার কি হল। উত্তর, তার থেকে ২৮ শতাংশ বিজেপি পেয়েছে। বাকি বিজেপির ১০ শতাংশ পকেট ভোট। হল, ৩৮ শতাংশ। তৃণমূল শেষ বিধানসভায় পেয়েছিল প্রায় পঁয়তাল্লিশ শতাংশ। সেখান থেকে তাদের ভোট কমেছে সামান্য। ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে তারা ৪৩ শতাংশের মত ভোট পেয়েছে। বাকি দুই শতাংশ গেছে বিজেপিতে।

2019 এর লোকসভা নির্বাচনে বাম কংগ্রেস একাই তৃণমূলকে বিপদে পড়েছিল আর বিজেপি যে ভোট পেয়েছিল সেটি ছিল ইউনাইটেড হিন্দুসমাজের ভোট। আসনের নিরিখে বিজেপি 18 টি আসন পেল ভোট কমেনি তৃণমূল কংগ্রেসের।তৃণমূল পেয়েছে 43 শতাংশ ভোট এবং বিজেপি পেয়েছিল 40 শতাংশ ভোট।কিন্তু এই ভোট ফলাফল ছিল আমফানের করোনার অনেক আগে, আম্ফান এবং করণা বাংলায় রাজনীতির হিসাব অনেকটা বদলে দিয়েছে। আম্ফান এবং করোনা এই দু এর প্রভাব নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের চিন্তিত না হয়ে থাকে, ভোটের মেরুকরণ নিয়ে অবশ্যই তৃণমূল কংগ্রেস কে অন্য কিছু ভাবতে হবে।