• chanakyabangla

বিয়ের জন্য ধর্ম পরিবর্তন, গ্রহণযোগ্য নয়, বললেন এলাহাবাদ হাইকোর্ট


বিয়ের জন্য ধর্ম পরিবর্তন, গ্রহণযোগ্য নয়, বললেন এলাহাবাদ হাইকোর্ট

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:শুধুমাত্র বিয়ের জন্য ধর্ম পরিবর্তন কে মান্যতা দিলেন না এলাহাবাদ হাইকোর্ট,শনিবার একটি মামলার রায় দিতে গিয়ে এ কথা জানালেন।এক নব দম্পতি যাদের বিয়ে হয়েছে শুধু মাত্র 3 মাস হয়েছে, তারা বিয়ের জন্য নিরাপত্তা চেয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন,কিন্তু বিচারক তাদের এই আবেদন খারিজ করে দেয়।আবেদনকারী মহিলা জন্মসূত্রে মুসলিম এবং বিয়ের পর হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেন।23 সেপ্টেম্বর বিচারক মহেশচন্দ্র ত্রিপাঠির সিঙ্গেল বেঞ্চ তার আবেদন খারিজ করে দেয়।ওই মহিলার আবেদন ছিল'বাধ্যতামূলক ব্যবস্থা'কোন আত্মীয়-স্বজন যেন তাদের দাম্পত্য জীবনে হস্তক্ষেপ করতে না পারে। আদালত সেই ব্যবস্থা করে দিক।তাদের অভিযোগ তারা চলতি বছরের জুলাই মাসে বিয়ে করে। কিন্তু বিয়ের পর মেয়ের বাবা তাদের জীবনে হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করে। বিচারক মহেশচন্দ্র ত্রিপাঠী এই মামলার রায় দিতে গিয়ে বলেন,

আবেদনকারী মহিলা ২০২০ সালের ২৯ জুন নিজের ধর্ম পরিবর্তন করেন৷ এর ঠিক এক মাস পর ৩১ জুলাই বিয়ে করেন। যা থেকে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে বিয়ের উদ্দেশ্যেই ধর্ম‌ পরিবর্তন করেছেন তিনি৷ ’’ এই মামলার রায় ঘোষণার সময় ২০১৪ সালে নূর জাহান বেগম মামলার প্রসঙ্গও তুলে ধরে আদালত৷ ওই মামলার রায়েও এলাহাবাদ হাইকোর্ট জানিয়েছিল, শুধুমাত্র বিয়ের জন্য ধর্মান্তর মেন নেওয়া যায় না৷ সেই সময় নুর জাহান বেগম মামলায় বলা হয়ছিল, একটি হিন্দু মেয়ে ইসলাম সম্বন্ধে কোনও জ্ঞান, বিশ্বাস ও ভক্তি না থাকার পরেও, কেবল মুসলিম ছেলেকে বিয়ে করার জন্য ধর্ম পরিবর্তন করাকে বৈধতা দেওয়া যায় না৷ মুসলিম ধর্মগ্রন্থ কোরানের সাহায্য নিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্ট জানিয়েছিল, এই ক্ষেত্রে বিয়ের জন্য ধর্মপরিবর্তন গ্রহণযোগ্য নয়। এই মামলার শুনানি দিতে গিয়ে তিনি এই উদাহরণটি তুলে ধরেন, তবে আদালত জানিয়েছে ওই দম্পতি চাইলে ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে তাদের জবানবন্দি দিতে পারেন এবং প্রশাসন চাইলে তাদের নিরাপত্তা দিতে পারেন এক্ষেত্রে আদালত কোনরকম হস্তক্ষেপ করবে না