• chanakyabangla

বিশেষভাবে সক্ষম মৃৎ শিল্পীর হাতের তৈরি দুর্গা প্রতিমা যেন প্রাণবন্ত।


বিশেষভাবে সক্ষম মৃৎ শিল্পীর হাতের তৈরি দুর্গা প্রতিমা যেন প্রাণবন্ত। এবারেরবারেরবারের পুজোয় সেই প্রতিমা পাড়ি দিচ্ছে প্রত্যন্ত গ্রাম এবং শহর কলকাতায়। শহরের পুলিশ বডিগার্ড লাইন টালিগঞ্জ, যাদবপুর, ঠাকুরপুকুর, বেহালা, তারাতলা এমনকী শ্যামবাজারেও। আবার যাচ্ছে কাকদ্বীপ, ডায়মন্ডহারবারেও। তবে অন্য বছর যেমন প্রতিমার উচ্চতা হত ১২ ফুট বা ২০ ফুট। এবার প্রতিমার উচ্চতা অনেকটাই কম। বিষ্ণুপুরের কাঙ্গনবেড়িয়ার মৃৎশিল্পী শুভজিৎ সাউ। মূক ও বধির। কিন্তু প্রতিমা শিল্পী হিসেবে তাঁর তৈরি দুর্গা প্রতিমা সমাদৃত সব জায়গায়। তাঁর হাতে তৈরি প্রতিমা পুলিশ বডিগার্ড লাইনে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী উদ্বোধন করেন। এবছর প্রতিমা গড়ার সংখ্যা কম। কারণ দেড় মাস আগে থেকে প্রতিমা তৈরির কাজ শুরু করেছেন শুভজিৎ। প্রতিমার গায়ের মাটি দেওয়া থেকে শুরু করে তুলির টানে মায়ের চক্ষুদান— সবই করেন শুভজিৎ। এবার থিমের পুজো তেমন নেই। মোট ৩৮টি প্রতিমা গড়ছেন তিনি। তার বেশিরভাগটাই সাবেকিয়ানার। এক কাঠামোয় প্রতিমা–সহ লক্ষ্মী, গণেশ, কার্তিক ও সরস্বতী। অন্যান্য বছরে ২৫ হাজার টাকায় প্রতিমা বিক্রি হয়েছে। এবছর ১৫ হাজার টাকায় প্রতিমা গড়ার বরাত পেয়েছেন এই শিল্পী। তাঁর মা রেখা সাউ বলেন, ‘‌করোনা আবহের জন্য এবার প্রতিমার বরাত অনেকটা কমে গেছে। তাছাড়া সহযোগীরাও কাজে আসতে পারছেন না। ফলে প্রতিমা গড়তে খুবই অসুবিধা হচ্ছে।’‌