• chanakyabangla

ভোট প্রচারে প্রাথমিক শিক্ষকদের মাঠে নামাচ্ছে তৃণমূল, “ভ’য় দেখিয়ে” অভিযোগ বাম বিজেপির


ভোট প্রচারে প্রাথমিক শিক্ষকদের মাঠে নামাচ্ছে তৃণমূল, “ভ’য় দেখিয়ে” অভিযোগ বাম বিজেপির

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

“মাস্টারমশাই আপনি কিন্তু কিছুই দেখেন নি”; ছিল বিখ্যাত সিনেমার ডায়লগ। যেখানে এক মাস্টারমশাইকে; বে’আইনি ঘটনা দেখেও চুপ করে থাকতে হু’মকি দেওয়া হয়েছিল। আর এবার, “চলুন মাষ্টারমশাই ঘুরি বাড়ি বাড়ি”; তৃণমূলের নতুন প্রচার অভিযান। প্রশান্ত কিশোরের নতুন পরিকল্পনায়; সায় দিয়েছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে; জোর বিতর্ক। পাখির চোখ একুশের বিধানসভা ভোট; সেই জন্যই এবার ভোট প্রচারে; ৬০ হাজার শিক্ষকদের মাঠে নামাচ্ছে তৃণমূল। গোটা অভিযানের নেতৃত্বে থাকবে; তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। শিক্ষকদের অনেক শিক্ষক অভিযোগ করেছেন; “বদলীর ভ’য় দেখিয়ে, ইচ্ছে না থাকলেও; ভোট প্রচারে যাবার জন্য বাধ্য করা হচ্ছে তাঁদের”। এই নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভ’য় দেখানোর অভিযোগ; তুলেছে বাম বিজেপি। এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল।


কয়েকমাস পরেই; রাজ্য বিধানসভা নির্বাচন। কর্পোরেট মার্কেটিংয়ের কায়দায়; মাঠে নামছে রাজ্যের শাসক দল। বিধানসভা ভোটের প্রচারে, ৬০ হাজার শিক্ষককে নিয়ে; ১২ হাজারটি দল; তৈরি করেছে তৃণমূল। প্রতি দলে পাঁচজন করে; প্রাথমিক শিক্ষক আছেন। ৬০ হাজার তৃণমূল শিক্ষকদের, এই নয়া অভিযানের নাম; ‘চলুন মাস্টারমশাই ঘুরি বাড়ি বাড়ি’। তৃণমূল ভবনে দলের মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়; এই অভিযানের সূচনা করবেন। ‘চলুন মাস্টারমশাই ঘুরি বাড়ি বাড়ি’; প্রকল্পের নামের মধ্যেই প্রচ্ছন্ন হু’মকি দেখছে; শিক্ষক সংগঠনগুলি। অনেকটাই, ফিল্মের “মাস্টারমশাই আপনি কিন্তু কিছুই দেখেন নি” গোছের।


গোটা অভিযানের নেতৃত্বে থাকবে; তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। দলীয় সূত্রে খবর, ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শেই; মমতার সম্মতিতে, এই অভিযান শুরু হচ্ছে। রাজ্যের প্রত্যেক জেলার প্রত্যেক পঞ্চায়েতে; প্রাথমিক শিক্ষকদের নিয়ে; দল গঠন করা হচ্ছে। শিক্ষকরা, রাজ্য সরকারের ৬৪টি মানবিক প্রকল্প সম্বলিত একটি পুস্তিকা; বাড়ি-বাড়ি বিনামূল্যে বিতরণ করবেন। মানুষকে মমতা সরকারের কাজ বোঝাবেন।


তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সভাপতি অশোক রুদ্র জানিয়েছেন; “২০১১ সালের পর থেকে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যত মানবিক প্রকল্প ঘোষণা করেছেন; তা নিয়ে আমরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে আলোচনা করব। গ্রামে গ্রামে ঘুরে সাধারণ মানুষের মনের কথা; জানবেন শিক্ষকরা। অভাব-অভিযোগের কথা রিপোর্ট আকারে; জমা পড়বে তৃণমূল ভবনে”। তা দেখবেন এবং ব্যবস্থা নেবেন; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে, সরকারি স্কুলের শিক্ষকরা, কেন তৃণমূলের হয়ে প্রচার করবেন; উঠেছে প্রশ্ন।


শিক্ষকদের নিয়ে তৃণমূলের এই নতুন প্রচার নিয়ে; বিজেপি শিক্ষক সংগঠনের নেতারা বলছেন; “বদলীর ভ’য় দেখিয়ে জোর করে; শিক্ষকদের ভোট প্রচারে নামাচ্ছে তৃণমূল”। সিপিএম শিক্ষক সংগঠনের নেতারা বলছেন; জো’র করে চাকরির ভ’য় দেখিয়ে, শিক্ষকদের প্রচারে নামানো যাবে; কিন্তু ভোট পাওয়া যাবে না”। তবে, বিরোধীদের এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে, তৃণমূলের দাবি; ” তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সদস্যরা; নিজের ইচ্ছেয় দলের হয়ে প্রচার করবেন। এর সঙ্গে জো’র করে ভ’য় দেখিয়ে প্রচারের; কোন সম্পর্ক নেই”। সব মিলিয়ে ‘চলুন মাস্টারমশাই ঘুরি বাড়ি বাড়ি’; শুরুর আগেই তুমুল বিতর্কে।