• chanakyabangla

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য! অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে এফআইআর,


মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য! অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে এফআইআর, পাল্টা হুমকি বিজেপি নেতার


সম্প্রতি বিজেপির সর্বভারতীয় যুগ্ম সম্পাদকের পদ পেয়েছেন তৃণমূলের বহিষ্কৃত প্রাক্তন সাংসদ অনুপম হাজরা। শনিবার সর্বভারতীয় বিজেপির সাংগঠনিক পদ পেয়েই রবিবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্যের বিরোধিতা করে শিলিগুড়িতে এফআইআর দায়ের হল অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে। তৃণমূল উদ্বাস্তু সেলের তরফে এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। যদিও তারপরেও এতটুকু অনুতপ্ত নন এই বিজেপি নেতা। বরং মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।


সূত্রের খবর, রবিবার বারুইপুর সাংগঠনিক জেলা কমিটির একটি সভায় উপস্থিত হয়েছিলেন অনুপম হাজরা। অভিযোগ, সেখানে অধিকাংশ বিজেপি কর্মীর মুখে মাস্ক ছিল না। এমনকি অনুপম হাজরার মুখেও ছিল না মাস্ক। স্বভাবতই সাংবাদিকরা কোভিড বিধি না মানার বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করলে তিনি জবাব দেন, ‘বিজেপি নেতা-কর্মীরা করোনার চেয়ে অনেক বড় ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। সেটা হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলে কংগ্রেস। তাই করোনায় তাঁদের কিছু হবে না।’ এখানেই থামেননি এই বিজেপি নেতা। অনুপমের আরও বক্তব্য, ‘আমি তো ঠিকই করে নিয়েছি, আমার করোনা হলে প্রথমে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে গিয়ে জড়িয়ে ধরব!’

মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে এহেন কুরুচিকর মন্তব্য ঘিরে সমালোচনার ঝড় উঠেছে রাজনৈতিক মহলে। অনেক রাজনৈতিক নেতা, কর্মীরাই বলছেন, শান্তিনিকেতনের ছাত্র হয়েও অনুপম হাজরার রুচিবোধ বলতে কিচ্ছু নেই।


সোমবার সকালে এই ঘটনার প্রেক্ষিতে অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার পাশাপাশি শিলিগুড়ি কমিশনারেটের সামনে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল উদ্বাস্তু সেলের সদস্যরা। সঙ্গে ছিলেন সংগঠনের মহিলা শাখার সদস্যবৃন্দও। বিক্ষোভকারীদের দাবি, রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের প্রতি এমন কুরুচিকর মন্তব্যের জন্য অবিলম্বে গ্রেফতার করা হোক বিজেপির সর্বভারতীয় যুগ্ম সম্পাদক অনুপম হাজরাকে। এরপর সাংবাদিকদের কাছে ফের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মুখ খোলেন অনুপম এবং মামলা করার হুঁশিয়ারি দেন।