• tathyamitragov

যাত্রীদের থেকে কত ভাড়া নেবে তা ঠিক করবে বেসরকারি সংস্থাই: কেন্দ্র

যাত্রীদের থেকে কোন সফরের জন্য কত ভাড়া নেবে, চালু হলে তা স্থির করবে বেসরকারি সংস্থাই। সরকার এ বিষয়ে মাথা গলাবে না। এদিন জানিয়ে দিল রেল মন্ত্রক। 

রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান ভিকে যাদব বললেন, ‘‌বেসরকারি সংস্থাগুলোর যাত্রীভাড়া নির্ধারণের স্বাধীনতা থাকবে। তবে ওই রুটে এসি বাস এবং বিমান চলে। ভাড়া নির্ধারণের আগে সংস্থাগুলোর এসব মাথায় রাখতে হবে।’‌ 

ভারতে রেলের ভাড়া অতি সংবেদনশীল একটি বিষয়। মনে রাখতে হবে, অস্ট্রেলিয়ার মোট জনসংখ্যা যত, ভারতে একদিনে তত মানুষ রেলে সফর করেন। এদেশে গরিব, মধ্যবিত্তদের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম হল রেল। অথচ দশকের পর দশক ধরে অবহেলিত হয়েছে ভারতীয় রেল। পরিষেবা এবং সুরক্ষা তথৈবচ। এবার সেই রেলেই বেসরকারি সংস্থাগুলোকে বিনিয়োগের আবেদন জানিয়েছে মোদি সরকার। স্টেশনের সংস্কার থেকে ট্রেন চালানো— সব জায়গাতেই অংশগ্রহণ করার ডাক দেওয়া হয়েছে বেসরকারি সংস্থাগুলোকে।

এসব প্রকল্পে আগ্রহ প্রকাশ করেছে আদানি এন্টারপ্রাইস লিমিটেড, জিএমআর ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেড, আলসটম এসএ, বম্বার্ডিয়ার ইনক। রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান যাদব জানিয়েছেন, আগামী পাঁচ বছরে ভারতীয় রেলে ৭৫০ কোটি ডলারা বিনিয়োগ আসতে চলেছে। 

মোদি সরকারের লক্ষ্য ২০২৩ সালে ভারতে বুলেট ট্রেন চালু করবে। এজন্য জাপানের থেকে স্বল্প সুদে ঋণ নিয়েছে। বুলেট ট্রেন চালুর আগে রেল লাইন, স্টেশন থেকে পরিকাঠামো সংস্কারের প্রয়োজন। যাত্রী ট্রেনের পরিষেবারও উন্নয়ন প্রয়োজন। সে কারণেই বেসরকারি বিনিয়োগের ডাক দিয়েছে মোদি সরকার।