• chanakyabangla

রাত পোহালেই নিট পরীক্ষা


রাত পোহালেই নিট পরীক্ষা।

চাণক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আগামীকাল অর্থাৎ ১৩ সেপ্টেম্বর দেশজুড়ে ন্যাশনাল এলিজিবিলিট কাম এন্ট্রান্স টেস্ট (‌নিট)‌ নেওয়া হবে। মহামারী আবহে পরীক্ষার্থীদের সুরক্ষার কথা ভেবে বেশকিছু নিয়ম কার্যকর করা হয়েছে।

নয়া নির্দেশিকায় পরীক্ষার্থীদের পোশাক ও পরীক্ষাকেন্দ্রে নিয়ে আসা সামগ্রী নিয়ে কিছু কড়া নিয়ম জারি করা হয়েছে। পোশাকের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে,

১. মাস্ক বাধ্যতামূলক। পরীক্ষার্থীরা গ্লাভস ও ফেস শিল্ড ব্যবহার করতে পারেন।

২. আবহাওয়ার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে হালকা ঢিলেঢালা জিন্স, টিশার্ট, কুর্তি, সালোয়ার, লং স্কার্টের মতো পোশাক পরার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

৩. টাইট, বড় বোতামওয়ালা ফুলহাতা পোশাক না পরাই উচিৎ। পুরো পা ঢাকা জুতো পরা চলবে না। পরীক্ষার্থী চটি বা গোড়ালি খোলা পাতলা জুতো পরে আসতে পারবেন।

৪. ধর্মীয় কোনও অলঙ্কার ছাড়া অন্য কোনও অলঙ্কার পরা চলবে না। 

৫. পাগড়ি, মাথার স্কার্ফ পরা যাবে। তবে প্রয়োজনে পরীক্ষা করা হতে পারে।

৬. হেডফোন, ব্লুটুথ, যে কোনও রকমের ঘড়ি পরার অনুমতি নেই।

কোন কোন নথি পরীক্ষাকেন্দ্রে আনতেই হবে?

১. অ্যাডমিট কার্ড, ডিক্লারেশন ফর্ম, সরকারি পরিচয়পত্র। পরীক্ষার্থী বিশেষভাবে সক্ষম হলে তার সার্টিফিকেট।

২. বল পয়েন্ট পেন।

৩. জলের স্বচ্ছ বোতল, স্যানিটাইজার।

৪. ব্যাগ, বই, স্টেশনারি কোনওরকম দ্রব্য পরীক্ষাকেন্দ্রে নিয়ে ঢোকা চলবে না।

৫. এক কপি রঙিন ছবি। 

করোনা আবহে পরীক্ষা হচ্ছে। তাই পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকার আগেও একগুচ্ছ নিয়ম মানতে হবে পরীক্ষার্থীদের। 

১. পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকার আগে থার্মাল স্ক্যান বাধ্যতামূলক।

২. পরীক্ষার্থীর দেহের তাপমাত্রা ৯৯.৪ ডিগ্রি ফারেনহাইটের বেশি হলে তাঁকে আইসোলেশন রুমে পাঠানো হবে।

৩. স্থানীয় কোভিড কেয়ার সেন্টারের ফোন নম্বর পরীক্ষাকেন্দ্রে রাখতে হবে।

৪. কোনও পরীক্ষার্থীর যদি করোনা উপসর্গ দেখা দেয়, চিকিৎসকরা সেখানে পরীক্ষা করবেন। অবস্থার অবনতি হলে নিকটবর্তী কোভিড কেয়ার সেন্টারে তাঁকে ভর্তি করা হবে।

৫. পরীক্ষা শেষে এক একজন করে পরীক্ষার্থী কেন্দ্রের বাইরে বের হবেন। তবে আগে গ্লাভস, মাস্ক নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলে, তবে বের হতে পারবেন।