• chanakyabangla

শীঘ্রই ভারতের বাজারে করোনা টিকা! রাজ্যগুলিকে প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ কেন্দ্রের


শীঘ্রই ভারতের বাজারে করোনা টিকা! রাজ্যগুলিকে প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ কেন্দ্রের

চানক্য বাংলা ওয়েব ডেস্ক:

করোনা টিকা শীঘ্রই আসছে! সেই লক্ষ্যে ভারতেও জোরকদমে প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। রাজ্যগুলিকেও প্রস্তুতি শুরু করার নির্দেশ দিয়ে চিঠি পাঠাল কেন্দ্র।

জানা গিয়েছে, সুষ্ঠুভাবে সকলকে করোনা টিকা দিতে কেন্দ্রের তরফে চিঠি দিয়ে সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে বিশেষ কমিটি গড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। টিকাকরণ শুরু করতে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে সুপারিশ এবং তদারকি করবে ওই কমিটি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ চিঠিতে জানিয়েছেন, প্রত্যেক রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে তিনটি স্তরে কমিটি গড়তে হবে। মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে থাকবে স্টেট স্টিয়ারিং কমিটি (এসএসসি), অতিরিক্ত মুখ্যসচিব অথবা প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি (স্বাস্থ্য)-র নেতৃত্বে থাকবে স্টেট টাস্কফোর্স (এসটিএফ) এবং জেলাশাসকের নেতৃত্বে থাকবে ডিস্ট্রিক্ট টাস্ক ফোর্স (ডিটিএফ)। এসএসসি-র দেওয়া শর্তাবলী এক মাসের মধ্যে পূরণ করতে হবে, এসটিএফএ-র নির্দেশাবলী পালন করতে হবে দু’সপ্তাহের মধ্যে এবং এক সপ্তাহের মধ্যে ডিটিএফ-এর শর্তাবলী পূরণ করতে হবে।

করোনার টিকাকরণ কর্মসূচির সময় কোন কমিটি কোন দায়িত্বে থাকবে, তা বিস্তারিত বলে দেওয়া হয়েছে ওই চিঠিতে। সমস্ত নাগরিকের কাছে করোনা টিকা পৌঁছচ্ছে কিনা, টিকাবণ্টনের দায়িত্বে থাকা সমস্ত বিভাগ ঠিকমত কাজ করছে কিনা, ঠিকমত টিকাকরণের প্রশিক্ষণ হচ্ছে কিনা, কে কোথায় কীভাবে টিকা পাচ্ছেন, এবং সমস্ত গোষ্ঠী এবং সম্প্রদায়ের মানুষের কাঠে সমান ভাবে টিকা পৌঁছচ্ছে কিনা, তা সুনিশ্চিত করার আলাদা আলাদা দায়িত্ব থাকবে কমিটির বিভিন্ন স্তরের ওপর।

উল্লেখ্য, নভেম্বরের গোড়াতেই ব্রিটেনে সাধারণ মানুষকে টিকা দেওয়া শুরু হয়ে যেতে পারে। একটি হাসপাতালকে টিকা দেওয়ার বন্দোবস্ত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই করোনা টিকা বাজারে চলে আসবে বলে জানিয়েছে উদ্যোগী আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজ়িস (এনআইএআইডি)। আমেরিকার ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা মডার্নার টিকা খুব শীঘ্রই বাজারে চলে আসবে বলে সংস্থার তরফে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ করার পথে ফাইজার। জনসন অ্যান্ড জনসন অল্পবয়সিদের উপর প্রতিষেধকের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করতে চলেছে। সবমিলিয়ে করোনা ভ্যাকসিনের প্রস্তুতি এখন তুঙ্গে। তবে ভারতের বাজারে প্রথম কোনটি আসবে তা সময়ই বলবে।