• chanakyabangla

সবজির দাম নিয়ন্ত্রণে, কলকাতায় পথে নামল এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ


আলু–‌সহ বিভিন্ন সবজির অত্যধিক মূল্যবৃদ্ধি রুখতে কলকাতা পুলিশের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ কোমর বেঁধে পথে নামল। বৃহস্পতিবার কলকাতার ৪টি বাজারে সকালেই হানা দিল ইবি–‌র দল। এদিন, কলকাতা পুরসভার ১১৮ নং ওয়ার্ডে ভোলানাথ মুখার্জি ও দেবপ্রিয় বসু পুরবাজারে আরটিপিসিআর পরীক্ষা হল। সুপার স্প্রেডারের খোঁজ করতেই বাজারগুলোতে অ্যান্টিজেন টেস্ট করার উদ্যোগ নেয় পুরসভা। ইতিমধ্যেই সরকারি ও বেসরকারি বাজার মিলিয়ে ৩৫০টি বাজারে পরীক্ষা চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে, কাজও শুরু হয়েছে। বাজার কমিটিগুলির সঙ্গেও কথা বলেছে পুর কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার ইবি কলকাতার কোলে মার্কেট, বৈঠকখানা, পোস্তা, মানিকতলা, রাসমণি বাজার, দমদম বাজার, ভবানীপুর, গড়িয়াহাট বাজার–‌সহ ৪৮টি বাজারে হানা দেয়। আজ শুক্রবারেও একইভাবে ইবি বিভিন্ন বাজারে রেইড করবে। কেন দাম বেশি নেওয়া হচ্ছে, তা জানার চেষ্টা করবে। ডিসি ইবি বিশ্বজিৎ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘‌কেন এত দাম, তা দেখা হচ্ছে।’‌ এদিন ৪টে দল বেরিয়েছিল কলকাতার ৪৮টি বড় বাজারে। সবজির দাম কত?‌ বিশেষত আলু, তা নিয়ে জানতে চাওয়া হয়। কেন এত দাম?‌ সে বিষয়ে প্রশ্ন করেন ইবি কর্তারা। কাগজপত্র পরীক্ষা করা হয়। বিক্রেতাদের বক্তব্য তাঁরা শোনেন। পুলিশকে বিক্রেতারা জানিয়েছেন পাইকারি বাজারের দাম শীঘ্রই কমবে। এদিন অবশ্য খুচরো বাজারে আলু প্রতি কেজি ২৫ টাকা থেকে শুরু করে ৩২ টাকা অবধি বিক্রি হয়েছে। আজ শুক্রবার উত্তর কলকাতা, পূর্ব কলকাতা, দক্ষিণ কলকাতা ও পশ্চিম কলকাতার বিভিন্ন বাজারে ইবি যাবে।

কলকাতা পুরসভার উদ্যোগে এদিন ভোলানাথ মুখার্জি ও দেবপ্রিয় বসু পুরবাজারে ৬৫ জন বিক্রেতার পরীক্ষা হয়েছে। ওয়ার্ড কো–‌অর্ডিনেটর এবং পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য তারক সিং বিক্রেতাদের উৎসাহিত করেন পরীক্ষা করার জন্য। বুধবার রক্সিতে বাজার দপ্তরের সঙ্গে জড়িত ৬৫ জনের অ্যান্টিজেন টেস্ট করানো হয়। দুজনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপরই নিয়ম মেনে দপ্তর বন্ধ রাখা হয়েছে। দপ্তরের বাকি কর্মীদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। ‌‌‌‌